সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
ঘোড়াঘাটে ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করায় যুবক গ্রেপ্তার – গ্রামীণ নিউজ২৪ পূজামণ্ডপে ধর্ম অবমাননার ঘটনায় দায়ী ব্যক্তি শনাক্ত – গ্রামীন নিউজ২৪ বাংলাদেশে কেউ সংখ্যালঘু নয় তথ্যমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী প্রদর্শনী কেন্দ্র’ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ মোংলায় ধর্ষণের অভিযোগে পিতা গ্রেফতার – গ্রামীন নিউজ২৪ ঠাকুরগাঁওয়ে পীরগঞ্জে চাকুরীজীবি কে ফাঁসাতে থানায় অভিযোগ – গ্রামীন নিউজ২৪ সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রাবি শিক্ষক সমিতির নিন্দা – গ্রামীন নিউজ২৪ অভাব-অনটন থেকে ভাগ্য ফেরাতে সৌদিআরব পৌঁছার ২ ঘণ্টা পরেই মৃত্যু – গ্রামীন নিউজ২৪ মোংলা পৌরসভায় যথাযোগ্য মর্যাদায় ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) পালিত – গ্রামীন নিউজ২৪ ফিরে দেখা সুন্দরগঞ্জের শান্তিরামের মোস্তাফিজুর রহমানের রাজনৈতিক জীবন – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

খানপুরে জমির দালাল গিয়াসউদ্দীনের তান্ডবে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী – গ্রামীন নিউজ২৪

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: / ১০৬৪ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৬ জুন, ২০২১, ১:৪১ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরা সদরের খানপুর গ্রামের মৃত সোনাই মোড়লের ছেলে গিয়াসউদ্দীনের তান্ডবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে ওই এলাকার আপামোর জনসাধারণ। আওয়ামীলীগের কোন পদপদবীতে তার কোন নাম না থাকলেও কখনও আওয়ামীলীগ নেতা আবার কখনও আওয়ামীলীগ কর্মী পরিচয় দিয়ে জমিদখল, জমির দালালী, হুমকিধামকি, মামলা দিয়ে ফাঁসানোসহ এলাকায় একেরপর এক অপকর্ম করেই চলেছেন তিনি। তার হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার দুপুরে একটি জমি সংক্রান্ত বিরোধের ব্যাপারে জানতে খানপুর এলাকায় সাংবাদিকরা গেলে গিয়াসউদ্দীনের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ এলকাবাসী।

এলাকাবাসী বলেন, গিয়াসউদ্দীন এলাকার বিভিন্ন মানুষের জমি চুক্তিতে লিজ নিয়ে মাছ চাষ করে। কয়েক বছর কেটে গেলে গিয়াস সেই লিজের জমি ছাড়েও না আবার জমি লিজের টাকা পরিশোধও করেনা। টাকা চাইলে সে ওই জমির মালিককে বিভিন্নভাবে হুমকি প্রদান করে। স্থানীয় জাহের আলীর জমি নিয়ে সম্প্রতি গিয়াস উদ্দীনের বিরোধ বাধে। জাহেরের কাছ থেকে জমি লিজ নিয়ে সে দীর্ঘদিন মাছ চাষ করছিল। সম্প্রতি জাহের তার জমি ছেড়ে দিতে বললে গিয়াসউদ্দীন গোপনে সেই জমিতে বেড়ী দেন। এরপর তিনি জমি ছাড়বেন এই শর্তে বেড়ী দেওয়ার ১৮ হাজার টাকা গ্রহণ করে সেটি হজম করে আবারও ওই জমি দখল করতে মরিয়া হয়ে গেছে। এজন্য গিয়াস উদ্দীন থানায় লিখিত অভিযোগও দিয়েছে। গিয়াসউদ্দীন ইটাগাছা এলাকায় কতিপয় মাস্তান টাইপের লোকের সাথে চলাচল করেন। আমরা কিছু বললেই সে তাদের দিয়ে আমাদের জামায়াত বানিয়ে হুমকি দেন। এজন্য তার বিরুদ্ধে আমরা কথা বলতে সাহস পায়না।

আওয়ামীলীগের সাথে গিয়াসের কোন সম্পর্ক নেই জানিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান বলেন, গিয়াস আমাদেও এলাকার মানুষের জন্য একটি আতঙ্কের নাম। তিনি এলাকায় ধান্দাবাজী, জমির দালালী, চিটারী, বাটপারীসহ একাধিক অপকর্মে লিপ্ত। তার কারণে আমার এলাকায় কেউ ভালভাবে জমি চাষাবাদ ও ঘেরে মাছ চাষ করতে পারিনা। যেখানে সুই না যায় সেখানে ও সুযোগ পেলে ফাল ঢুকিয়ে দেয়। কারও কোন জমিতে বিরোধ বাঁধলেই ও সেখানে যেয়ে একটা পক্ষের সাপোর্ট দিয়ে বিরোধ আরো বৃদ্ধি করে দেন। এছাড়া কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বললে তিনি তার বউকে দিয়ে হুমকি দেন। ফলে আত্মসম্মানের ভয়ে কেউ তার বিরুদ্ধে কথা বলতে সাহস পায়না।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে গিয়াস বলেন, আমি আওয়ামী লীগের কর্মী। তবে আওয়ামীলীগের কোন তালিকায় আমার নাম নেই। এছাড়া আমি কারো জমি দখল বা অন্য কোন অপকর্ম করিনা। জাহেরের জমিতে আমি ৩০ বছর ধরে মাছ চাষ করছি। হঠাৎ সে বলছে আর আমাকে জমি দেবেনা। এজন্য সম্প্রতি জাহেরের সাথে বিরোধ বেঁধেছে। তবে এই জমি তে আমি মৌখিকভাবে মাছ চাষ করছি। আমার কোন কাগজপত্র নেই।

  • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর