সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
সুন্দরবনের দুই জীবন্ত কিংবদন্তি – গ্রামীন নিউজ২৪ বাগমারায় পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু – গ্রামীন নিউজ২৪ লকডাউনে ‘ডোরস্টেপ ডেলিভারি’দিচ্ছে ভিভো হটলাইনে কল করলেই পৌঁছে যাবে ভিভো স্মার্টফোন – গ্রামীন নিউজ২৪ ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে মসজিদ উন্নয়নের জন্য অনুদান দিলেন এমপি পুত্র – গ্রামীন নিউজ২৪ দেশে আইপি টিভির অনুমোদন নেই তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ – গ্রামীন নিউজ২৪ করোনায় ২৪৬ জনের মৃত্যু – গ্রামীন নিউজ২৪ ঠাকুরগাঁওয়ে ৩ কেজি গাঁজা উদ্ধার ও ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাজা – গ্রামীন নিউজ২৪ কয়রায় ভারী বর্ষনে রোপা আমন মৌসুমের বীজতলা নষ্ট হয়ে কৃষকের ব্যাপক ক্ষতি – গ্রামীন নিউজ২৪ করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে এফডিএ’র ত্রাণ সহায়তা – গ্রামীন নিউজ২৪ শিবগঞ্জে নিখোঁজ গৃহবধূর লাশ ভাসছিল পুকুরে – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
আমাদের সাইটের উন্নয়ন মূলক কাজ চলছে... সাথেই থাকুন! গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

বায়িং এর আড়ালে মাদক ব্যাবসা আটক ৬জন – গ্রামীন নিউজ২৪

গ্রামীন নিউজ ডেস্কঃ / ১৪৮৩৫ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৮ জুন, ২০২১, ৩:৪৫ অপরাহ্ন

রাজধানীর উত্তরায় বায়িং হাউসের জন্য অফিস ভাড়া নিয়ে ভয়ঙ্কর মাদক ক্রিস্টাল আইসসহ নানা ধরনের মাদক ব্যবসা পরিচালনা করছে একটি চক্র এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকা থেকে ওই চক্রের মূলহোতাসহ ৬ জনকে আটক করেছে র‌্যাব।

আটকতৃরা হলেন- মূলহোতা মো. তৌফিক হোসাইন (৩৫), মো. জামিরুল চৌধুরী ওরফে জুবেইন (৩৭), মো. আরাফাত আবেদীন ওরফে রুদ্র (৩৫), মো. রাকিব বাসার খান (৩০), মো. সাইফুল ইসলাম ওরফে সবুজ (২৭), মো. খালেদ ইকবাল (৩৫)।

র‌্যাব জানায়, আটককৃতদের কাছ থেকে আইস, ইয়াবা, বিদেশি মদ, গাঁজা এবং ১৩টি বিদেশি অস্ত্র, রেপলিকা অস্ত্র ও ইলেকট্রিক শক যন্ত্র, মাদক সেবনের সরঞ্জাম ও ল্যাবরেটরির সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানিয়েছে, চক্রের মূলহোতা ও সমন্বয়কারী তৌফিক। অর্থ যোগানদাতা জুবেইন ও খালেদ। রুদ্র কেমিস্ট হিসেবে ‘মেথ ল্যাব’ পরিচালনা করতেন। আর সবুজ মাদক সংগ্রহ ও সরবরাহকারী এবং বাকিরা মাদক বিপণনের সঙ্গে জড়িত। রুদ্রের নামে তিনটি মাদক মামলা রয়েছে এবং জুবেইনের নামে একটি হত্যাচেষ্টা মামলা রয়েছে। এদের মধ্যে জুবেইন লন্ডন থেকে বিবিএ, তৌফিক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ, খালেদ বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ এবং রুদ্র ও সাইফুল এইচএসসি পাস।

শুক্রবার বিকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, তাদের মেথ ল্যাবটি মূল কেমিস্ট এইচএসসি পাস রুদ্র ও তার কয়েকজন সহযোগীরা পরিচালনা করতেন। তারা আইস ও ইয়াবার পরীক্ষামূলক বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছিল। বাজার থেকে বিভিন্ন ওষুধ ও কেমিক্যাল আইসের সঙ্গে মিশিয়ে পরিমাণ বাড়িয়ে বিক্রি করতেন। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিতে ইয়াবার রং পরিবর্তন এবং ঝাক্কি তৈরি করতেন। ঝাক্কি তৈরিতে তারা তরল পানীয়র সঙ্গে ইয়াবা, ঘুমের ওষুধ ও অন্যান্য নেশাজাতীয় ওষুধ মেশাতেন। এই ঝাক্কি ইয়াবার চেয়েও শক্তিশালী।

র‌্যাব ককর্মকর্তা খন্দকার আল মঈন বলেন, তৌফিককে আমরা চক্রের মূল সমন্বয়ক হিসেবে পেয়েছি। আগে তারা ইয়াবা কারবারে জড়িত ছিল। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দুই বছর ধরে নতুন মাদক ক্রিস্টাল আইস নিয়ে কাজ শুরু করে। সময়ের প্রয়োজনে এখন ঝাক্কি প্রস্তুত করছিল তারা। চক্রটি টেকনাফ, মিরপুর, গুলশান-বনানীর বিভিন্ন ব্যক্তির কাছ থেকে ক্রিস্টাল আইস সংগ্রহ করে সেগুলো তাদের সার্কেলে সরবরাহ করত। এই একটি গ্রুপের বাইরে আরও কয়েকটি ক্লোজ গ্রুপ রয়েছে বলে জানা গেছে। তাদের গ্রেফতারে গোয়েন্দা কার্যক্রম অব্যাহত হয়েছে।

অস্ত্রের ব্যবহার প্রসঙ্গে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, আটক জুবেইনের এইম গেমিংয়ের নেশা ছিল। মাদক সেবনের পর তারা এই অস্ত্র দিয়ে এইম গেমিংয়ের নামে জুয়াও খেলত। এ ছাড়া যারা মাদক গ্রহণের জন্য আসত তাদের ভয়ভীতি পরিদর্শনের জন্য ব্যবহার করা হতো।


এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর