সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
বিশ্ব ফার্মাসিস্ট ডে উপলক্ষে পিএসডব্লিউএবির র‍্যালী ও লিফলেট বিতরণ – গ্রামীন নিউজ২৪ রিশিকুল ইউপির নৌকা প্রতীক প্রত‍্যাশী মাহবুবুর রহমান টিটুর দোয়া ও সমর্থন কামনা – গ্রামীন নিউজ২৪ ডুমুরিয়ায় সাংবাদিকদের মতবিনিময় করলেন শেখ হারুন – গ্রামীন নিউজ২৪ রাজারহা‌টের তিস্তার ভাঙ্গণ কবলিত এলাকা পরিদর্শন করলেন প্রধানমন্ত্রীর সহকারী প্রেস সচিব – গ্রামীন নিউজ২৪ নূরনগরে হিন্দু ছাত্রীকে বিয়ে করায় প্রধান শিক্ষককে বহিস্কারের দাবীতে মানববন্ধন – গ্রামীন নিউজ২৪ নভেম্বর এসএসসি ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা শিক্ষামন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ কোভিড-মুক্ত বিশ্ব গড়তে সার্বজনীন ও সাশ্রয়ী মুল্যে টিকা প্রাপ্যতার দাবী প্রধানমন্ত্রীর – গ্রামীন নিউজ২৪ প্রেসক্লাব গাইবান্ধা’র সভাপতি খালেদ ও সম্পাদক জাভেদ নির্বাচিত – গ্রামীন নিউজ২৪ খুলনার ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চার – গ্রামীন নিউজ২৪ সাতক্ষীরায় জলবায়ু ধর্মঘট ও প্রতীকি ফাঁসি কর্মসূচি পালন – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

বিখ্যাত গৌরাঙ্গবাড়ী মন্দিরে প্রণোদনার বিশ হাজার টাকা আত্মসাত- গ্রামীন নিউজ২৪

মোঃ মানিক হোসেন, রাজশাহী প্রতিনিধি: / ৩৯৯ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১, ১২:৪১ অপরাহ্ন

রাজশাহীর জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার প্রেমতলীর শ্রী পাট খেতুরি ধামের বিখ্যাত গৌরাঙ্গ বাড়ী মন্দিরের ম্যানেজার খামারি প্রণোদনার বিশ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয়রা। বিখ্যাত গৌরাঙ্গবাড়ী মন্দিরে প্রণোদনার বিশ হাজার টাকা আত্মসাতে সত্যিই ম্যানেজার!

এ অভিযোগে ৩০ জুলাই, শুক্রবার বেলা ১১টায় সরেজমিনে গিয়ে বিষয়টি বিস্তারিত জানা যায়,
বিগত ঈদ উল ফিতরের পরে ২০০০০ টাকা প্রণোদনা দান করেন খামারি ট্রাস্ট প্রকল্প। সেই টাকা মন্দিরের ৯টি গবাদি পশুর খাদ্য উন্নয়নের জন্য দান করেন খামারি ট্রাস্ট প্রকল্প। কিন্তু সেই টাকা আত্মসাৎ করার চেষ্টা করেন ম্যানেজার গোবিন্দ পাল।

এই বিষয়ে প্রতিবাদ করেন এরিয়া ম্যানেজার শ্রী গোপাল ঘোষসহ এলাকাবাসী। প্রতিবাদ করার কারণে বিভিন্ন অজুহাতে গোপাল ঘোষকে পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়।

এলাকাবাসি ম্যানেজারের সম্পর্কে লিখিত অভিযোগে জানান, মন্দিরের ২২টি বড় বড় গাছ কেটে আত্মসাত করেছে। মন্দিরের বরাদ্দের চালের কিছু অংশ বিক্রি করে। রান্না করা অন্ন ভোগ ১০০ টাকা প্রলেপ হিসেবে বাহির থেকে আসা ভক্তদের কাছে বিক্রি করেন। বাহির থেকে ভক্ত এসে রাতে থাকার প্রয়োজন হলে ঘরের ভাড়া আদায় করেন। টাকা ছাড়া গরিব ভক্তদের প্রসাদ দেন না । টাকা দিতে না পেরে প্রসাদ না নিয়ে ফিরে আসেন গরিব ভক্তরা। লিখিত অভিযোগ করেন এলাকা বাসি

এই অভিযোগ এর ভিত্তিতে পরবর্তীতে সজল ঘোষ প্রতিবাদ শুরু করেন। এক পর্যায়ে সজল ঘোষ সভাপতি মদন মোহন দে-কে অবহিত করেন। সভাপতি মদন মোহন দে পরবর্তীতে ম্যানেজার গোবিন্দ পালের কাছে জানতে চাইলে, তিনি অস্বীকার করেন। কিন্তু সজল ঘোষ ধীরে ধীরে প্রমাণ খুঁজতে থাকেন।

যখন প্রমান দেখানো হয় তখন গোবিন্দ পাল স্বীকার করেন যে তিনি তার নিজস্ব খামারের টাকা মনে করে নিজস্ব খাতে রেখেছিল।
ম্যানেজারকে চাপ সৃষ্টি করে সভাপতি মদন মোহন দে এবং সজল ঘোষ, প্রমাণ গুলো জন সম্মুখে আনতে শুরু করেন। তখন ম্যানেজার গোবিন্দ পাল ,গৌরাঙ্গ দেব বিগ্রহ ট্রাস্ট তহবিলে টাকা জমা দেন।
এই ঘটনার সূত্রকে কেন্দ্র করে ম্যানেজার গোবিন্দ পালের পদত্যাগ এর দাবি উঠে আসে। সে দীর্ঘ ১৫ বছর ধরে ম্যানেজারের দায়িত্ব পেয়ে, নিজের ইচ্ছে অনুযায়ী নিয়ম ও কাজ করে থাকে।

স্থানীয়রা জানান, ঠাকুরেরা ধর্ম নিয়ে ব্যস্ত। আর ম্যানেজার টাকা নিয়ে ব্যস্ত। বাংলাদেশের এই খেতুরী ধামে ৫০ টির বেশী দেশের লোক আসে। মন্দিরের জায়গা জমি অনেক। প্রণোদনার টাকা ছাড়াও বিদেশি ভক্তরাও সঁপে দেয় প্রণামী। মেলার সময় অনেক টাকা চাঁদা উঠানো হয়। পুকুর আর ফসল থেকেও টাকা আসে। আসলে টাকা কোথায় জমা হয়, আমরা জানিনা।

উৎপল নামে একজন বলেন, মহিলা টয়লেট নষ্ট ম্যানেজার ঠিক করে না। বৃষ্টির পানিতে মন্দিরের অনেক জায়গায় শ্যাওলা জমে পিচ্ছিল হয়ে গেছে, দেখার কেউ নেই। মন্দিরের পেছনে প্রাচীরের সংস্কার দরকার পুরাতন ও ফাটল ধরেছে। রান্নাঘর ভালো নাই। এতবড় একটা মন্দির যেখানে মৃত ব্যক্তির দেহ সৎকার করার ব্যবস্থা নেই।

ম্যানেজারকে অভিযোগের বিষয়গুলো সম্পর্কে জানালে বলেন, আমি ম্যানেজার। আমাকে যেভাবে নির্দেশ দেয়া হয়, ঠিক সেভাবে আমি করি। এতে আমার কিছু করার নেই। আত্মসাতের টাকা আমি ভুল করে রেখেছিলাম। করোনা ভাইরাসের কারণে জমা দিতে দেরি হলো।

  • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর