সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
কৃষিজমি নষ্ট করে বালু ভরাট চলমান উন্নয়নকে প্রশ্নবিদ্ধ করবে – গ্রামীন নিউজ২৪ ফুলছড়ি ও সাঘাটা উপজেলার ১৫ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক পেলেন যারা – গ্রামীন নিউজ২৪ আগামী তিন দিন পরে বৃষ্টির সম্ভবনা – গ্রামীন নিউজ২৪ ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের দাম কমলো – গ্রামীন নিউজ২৪ ময়মনসিংহ এইচএসসি পরীক্ষায় ৭০ হাজার ৯৪১ জন ছাত্রছাত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ সাদুল্লাপুরে বিনামূল্যে কৃষকের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ – গ্রমীন নিউজ২৪ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষামন্ত্রী আসছেন আগামীকাল – গ্রামীন নিউজ২৪ সড়ক দুর্ঘটনায় পিতা-পুত্র নিহত- গ্রামীন নিউজ২৪ স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসির আদেশ – গ্রামীন নিউজ২৪ ৬ ছাত্র হত্যা মামলার রায়ে ১৩ আসামির মৃত্যুদণ্ড ও ১৯ জনের যাবজ্জীবন – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

মাজারের ভুয়া খাদিম বাবুলের বিরুদ্ধে জালিয়াতি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ- গ্রামীন নিউজ২৪

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: / ৯০১ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর, ২০২১, ৯:৪৬ অপরাহ্ন

হযরত শাহ নেংটা বাবার মাজারের ভুয়া খাদিম বাবুল মিয়ার বিরুদ্ধে জালিয়াতি ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবরে অভিযোগটি দায়ের করেন হয়রানির শিকার শফিকুল ইসলাম।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ওয়াক্ফ দলিলের বিধান মোতাবেক ওয়াকিফ দুলামান্নেছা ধর্মপাশা উপজেলার আকতাপাড়া গ্রামের হযরত শাহ নেংটা বাবার মাজারের মুতাওয়াল্লী নিযুক্ত হন। ওয়াকফ মোতাবেক দোলামান্নেছার মৃত্যুর পর তার ১ম পুত্র মোতাওয়াল্লী নিযুক্ত হওয়ার কথা থাকলেও তার মৃত্যুর কারনে জালিয়াতির মাধ্যমে ওয়াকিফের ২য় পুত্র বাবুল মিয়া মোতাওয়াল্লী নিযুক্ত হন। তিনি মুতাওয়াল্লী হওয়ার পর থেকেই মাজারের টাকা তার নিজের ব্যাংক একাউন্টে জমা রাখে এবং তার নিজের মত করে টাকা উত্তোলন করে বিলাস বহুল বাড়ি ও অনেক জমির মালিক হয়ে যায়। অথচ লোক সমাজে বলাবলি করে এসব জায়গা মাজারের। তবে প্রকৃত পক্ষে নিজের নামে দলিল করে নেয়। তিনি মাজারের কোন উন্নয়নমূলক
কাজ করেন নি। আরো জানা য়ায়,

অভিযোগকারীর দাদী মরহুমা দুলামুন্নেছা ২০১২ সালের ৩রা অক্টোবর মৃত্যু বরণ করেন। অথচ চাচা মো: বাবুল মিয়া বিগত ০৮/০৫/২০১৫ইং সনে তার দাদীর মৃত্যুর ৩ বছর পর দাদীকে দাতা সাজিয়ে একটি ভুয়া দানপত্র সৃজন করেন। যার দানপত্র রেজি: দলিল নং ৫০৯। তার দাদীর রেখে যাওয়া ওয়াকফ মোতাবেক পিতার মৃত্যুর পর উক্ত মাজারের মুতাওয়াল্লী হওয়ার কথা ছিল শফিকুল ইসলামের। কিন্তু তাকে বঞ্চিত করে তার চাচা মাজারের মুতাওয়াল্লী সেজে এবং মাজারের কোন উন্নয়ন না করেই মাজারের লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন। বাবুল মিয়ার এহেন অন্যায় কাজের প্রতিবাদ করলেই সে মিথ্যা মামলা ও অভিযোগ দিয়ে নানভাবে হয়রানী করে। তারই জের ধরে গত ২রা অক্টোবর ধর্মপাশায় স্থানীয় সংবাদদিকদের সম্মুখে মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে একটি কাল্পনিক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

অভিযোগকারী আরো উল্ল্যেখ করেন, আমার পিতা মরহুম লিলু মিয়া মারা যাওয়ার পর থেকেই আমার চাচা মো: বাবুল মিয়া ও তার সহযোগি কয়েকজন জোরপূর্বক সম্পুর্ন অন্যায়ভাবে হযরত শাহ নেংটার বাবার মাজারে সাধারন মানুষ ও ভক্তদের দান খয়রাতকৃত অর্থ লুটেপুটে খাচ্ছেন। বাবুল মিয়ার এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে তিনি আমাদের প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করেন। তাই ঘটনাটি সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে ওয়াকফ মোতাবেক অভিযোগকারী শফিকুল ইসলামকে মাজারের মোতাওয়াল্লী পদে নিযুক্ত করার জন্য তিনি প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

  • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর