সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
ঘোড়াঘাটে গলায় ওড়না পেচিয়ে যুবকের আত্মহত্যা – গ্রামীন নিউজ২৪ ঘরে ঘরে বিদ্যুতায়নের লক্ষে সোলার হোম সিস্টেম বিতরণ – গ্রামীন নিউজ২৪ ময়মনসিংহের শম্ভুগঞ্জে ভ্যানের উপরে বিদ্যুতের তার ছিড়ে নিহত দুই – গ্রামীন নিউজ২৪ জয়পুরহাটে ডিবি পরিচয়ে ছিনতাইয়ের সময় আটক-৪ – গ্রামীন নিউজ২৪ গাজীপুরের কালীগঞ্জে অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ে ট্রেনের ধাক্কায় পিকআপের তিন যাত্রী নিহত – গ্রামীন নিউজ২৪ রেল লাইনের উপরে গাছ ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ – গ্রামীন নিউজ২৪ শ্যামনগরে ভ্যান শ্রমিকদের সাথে এম পি জগলুলের মতবিনিময় – গ্রামীন নিউজ২৪ এক এক করে বাড়ছে নিত্যপণ্যের দাম – গ্রামীন নিউজ২৪ পদ্মাসেতু নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া বক্তব্য নিয়ে ভুল ব্যাখ্যা দিচ্ছে বিএনপি- ওবায়দুল কাদের – গ্রামীন নিউজ২৪ ১০ কোটি টাকার স্বর্ণের বারসহ আটক এক – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

শেরপুরে স্ত্রীকে হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড – গ্রামীন নিউজ২৪

শেরপুর প্রতিনিধিঃ / ৫৯০ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১০ মে, ২০২২, ২:৫৩ অপরাহ্ন

শেরপুরে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনে স্ত্রীকে হত্যার মামলায় ফুরকান আলী (৩৬) নামে এক ব্যক্তিকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত।

মঙ্গলবার (১০ মে) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান আসামির অনুপস্থিতিতে ওই রায় ঘোষণা করেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ফুরকান আলী শ্রীবরদী উপজেলার রানীশিমুল ইউনিয়নের চেল্লাকান্দি এলাকার ময়দান আলীর ছেলে ও এক সন্তানের জনক। তবে, মামলার পর থেকেই পলাতক রয়েছে ফুরকান। একইসাথে মামলার অপর ৩ আসামি ফুরকানের বাবা ময়দান আলী (৫৯), মা ফুলেতন বেগম (৪৯) ও আত্নীয় সওদাগর আলী (৬১) কে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বেকসুর খালাস দেওয়া হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুালের পিপি এ্যাডভোকেট গোলাম কিবরিয়া বুলু জানান, ২০১১ সালের ২ জুলাই রাতে স্ত্রী এক সন্তানের জননী ও শ্রীবরদী উপজেলার বড়গেরামারা এলাকার আব্দুল জব্বারের মেয়ে জহুরা বেগমকে (২৩) যৌতুকের দাবি আদায়ে ব্যর্থ হয়ে মারপিট ও শ্বাসরোধে হত্যার পর তার লাশ নিজ ঘরের দর্ণায় ফাঁসিতে ঝুঁলিয়ে রাখে পাষন্ড স্বামী ফুরকান আলী। ওই ঘটনায় পর দিন ফুরকান আলী, তার বাবা-মা ও ২ আত্নীয়সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে শ্রীবরদী থানায় মামলা দায়ের করেন জহুরা বেগমের বড় ভাই ফজলুল হক। পরবর্তীতে তদন্ত শেষে একই বছরের ২০ নভেম্বর ফুরকানের আত্নীয় আজিজুর রহমান ব্যতীত ৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন শ্রীবরদী থানার এসআই নুরুল আমিন খান। পরবর্তীতে একমাত্র ময়দান আলী হাজির হয়ে বিচারের মুখোমুখি হলেও অপর ৩ আসামিই পলাতক থাকে। ফলে মামলার বিচার নিষ্পত্তিতে সৃষ্টি হয় দীর্ঘসূত্রিতা। মামলায় চূড়ান্ত পর্যায়ে বাদী, চিকিৎসক ও তদন্ত কর্মকর্তাসহ ৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য প্রমাণে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১১ (ক) ধারায় আনিত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় ফুরকান আলীকে ওই দন্ড দেওয়া হয়। এছাড়া একই আইনে সহায়তার অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অপর আসামিদের খালাস দেওয়া হয়।

  • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর