সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে অস্ত্রসহ আরসা কমান্ডার গ্রেপ্তার – গ্রামীন নিউজ২৪ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বিদায়ী সেনাপ্রধানের শ্রদ্ধা – গ্রামীন নিউজ২৪ সাগরে মিয়ানমারের ৩ যুদ্ধজাহাজ, সেন্টমার্টিনে আতঙ্ক – গ্রামীন নিউজ২৪ শিমুল-তানভীর-শিলাস্তির পর দায় স্বীকার বাবুর – গ্রামীন নিউজ২৪ চৌদ্দগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় কাভার্ডভ্যান চালক নিহত – গ্রামীন নিউজ২৪ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজট – গ্রামীন নিউজ২৪ ময়মনসিংহে পানিতে ডুবে তিন ভাই-বোনের মৃত্যু – গ্রামীন নিউজ২৪ পাবনায় কলেজছাত্র হত্যায় ৩ জনের যাবজ্জীবন – গ্রামীন নিউজ২৪ প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ঈদ উপহার ভিজিএফের চাল বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে – গ্রামীন নিউজ২৪ র‍্যাব সেজে ডাকাতি করে তারা, হাতে থাকে হাতকড়া – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

দুর্যোগ প্রবন কয়রায় গৃহহীনদের জন্য গড়ে তোলা হয়েছে নিরাপদ আবাসন রয়েছে কর্মমুখী পরিকল্পনা – গ্রামীন নিউজ২৪

মোহাঃ ফরহাদ হোসেন, কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধিঃ / ৪১৭ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০২২, ৯:৪৯ অপরাহ্ণ
  • Print
  • খুলনার কয়রায় গৃহহীন পরিবারের জন্য বিদেশী অর্থায়নে গড়ে তোলা হয়েছে দৃষ্টিনন্দন আবাসন প্রকল্প। এ প্রকল্পে গৃহহীন ৪০ পরিবারের জন্য আলাদা পাকা ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। সেই সাথে প্রয়োজনীয় সকল নাগরিক সুবিধাসহ গ্রহন করা হয়েছে কর্মমুখি পরিকল্পনা। ফলে নিরাপদ আবাসনের পাশাপাশি স্বাবলম্বি হয়ে উঠবেন অসহায় ৪০টি পরিবার।

     

    কয়রা উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার পূর্বে সুন্দরবন সংলগ্ন বতুলবাজার গ্রামে এ প্রকল্প গড়ে তোলা হয়েছে। ‘কুয়েত সোসাইটি ফর রিলিফ’ নামে একটি বিদেশী সংস্থার আর্থিক সহযোগীতায় প্রায় ৩ একর জমিতে এ আবাসন প্রকল্পের কাজ প্রায় সমাপ্তীর পথে। অল্প সময়ে েমধ্যে এটি বসবাসের জন্য উদ্বোধন করা হবে। প্রকল্পের প্রতিটি ঘর নির্মাণে খরচ হয়েছে প্রায় ৮ লাখ টাকা। প্রকল্পটির তত্ববধায়ক ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল হাসান সরদার জানান, এলাকায় এ ধরনের প্রকল্প এই প্রথম। তার বড় ভাই এস এম মমতাজুল ইসলাম এলাকার গৃহহীন মানুষের কথা বিবেচনা করে প্রকল্পটি বাস্তবায়নে সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করেছে। প্রকল্পটি ঘুরে এবং সংশ্লিষ্টদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, সেখানে প্রত্যেক পরিবারের জন্য আলাদা দুই কক্ষ বিশিষ্ট ঘরে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র থাকবে। প্রতিটি ঘরে দুটি করে বারান্দা,একটি রান্না ঘর ও দুটি বাথরুম করা হয়েছে। ঘরে বসবাসের জন্য দেওয়া হবে উন্নত মানের খাট, তোশক সহ অন্যান্য জিনিষপত্র। সেই সাথে প্রকল্পের বাসিন্দাদের জন্য থাকবে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, চিকিৎসাসেবা কেন্দ্র, মসজিদ ও খেলার মাঠ। প্রকল্পের ভিতরে যাতায়াতের সব রাস্তা এর মধ্যে ইটের সোলিং করা হয়েছে। এ ছাড়া বিদ্যুৎ ও সুপেয় পানির ব্যবস্থাও রয়েছে। প্রকল্পের ভিতরে ও বাইরে লাগানো হয়েছে ফুল ও ফলের গাছ। স্থানীয় উত্তর বেদকাশি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নুরুল ইসলাম কোম্পানী বলেন, দুর্যোগ প্রবণ এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের সহযোগীতায় এ প্রকল্পটি আসলেই প্রশংসনীয়। সরকারের পাশাপাশি দাতা সংস্থাদের সহযোগিতায় এ ধরনের প্রকল্প এলাকায় আরও গড়ে উঠলে গৃহহীন মানুষের দুর্ভোগ লাঘব হবে। সেই সঙ্গে স্থানীয়ভাবে আমাদের উপর চাপ কমবে।

     

    প্রকল্পের সমন্বয়কারি এস, এম মমতাজুল ইসলাম বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে বসতবাড়ি ও জমি হারিয়ে যেসব পরিবার নিঃস্ব হয়েছে সেসব পরিবারকে পুনর্বাসনে প্রাধান্য দেওয়া হবে। এলাকার অনেক পরিবার রয়েছে তারা এখন পর্যন্ত বাঁধের ঢালে খুপরি বেধে বাস করছেন। তাদেরকেও এ প্রকল্পের সুযোগ-সুবিধার আওতায় আনা হবে। এখানে তারা নাগরিক জীবনের সকল সুযোগ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। সেই সাথে এসব পরিবারগুলো আর্থিকভাবে স্বাবলম্বি করতেও সহযোগীতা করা হবে। কয়রা উপজেলার উন্নয়ন সমন্বয় সংগ্রাম কমিটির সাধারন সম্পাদক ইমতিয়াজ উদ্দিন বলেন, আমি প্রকল্পটি ঘুরে দেখেছি। গৃহহীন মানুষকে আবাসন সুবিধার পাশপাশি স্বাবলম্বী করে তোলা হবে এ প্রকল্পের মাধ্যমে। প্রকল্পের কাজ ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে। তাদের পরিকল্পনা দেখে বুঝতে পেরেছি অনেক ভাল একটি কাজ হয়েছে এলাকায়। এধরনের প্রকল্প আরও ব্যবস্থার দাবি জানান তিনি।


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর