সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
লালমনিরহাটে রাসেল ভাইপার সাপের দেখা – গ্রামীন নিউজ২৪ একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির প্রথম ধাপের ফল প্রকাশ – গ্রামীন নিউজ২৪ আটপাড়ায় আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত – গ্রামীন নিউজ২৪ মুক্তাগাছায় আওয়ামীলীগ এর ৭৫তম প্লাটিনামজয়ন্তী উদযাপন – গ্রামীন নিউজ২৪ হাসপাতালে খালেদা জিয়া, আছেন সিসিইউতে – গ্রামীন নিউজ২৪ মহাত্মা গান্ধীর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা – গ্রামীন নিউজ২৪ দিল্লি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ পাঞ্জাবে সাত দিনের জন্য ১৪৪ ধারা জারি – গ্রামীন নিউজ২৪ দুর্নীতি মামলায় জামিন পেলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ ঘোড়াঘাটে নবীন বরণ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

জমে উঠেছে পাবনার নাকালিয়া তালের বাজার – গ্রামীন নিউজ২৪

ইব্রাহীম খলীল, পাবনা জেলা প্রতিনিধি: / ১৬৩৪ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ আগস্ট, ২০২১, ২:০৫ পূর্বাহ্ণ
  • Print
  • কথায় বলে তাল পাকা গরম! ভাদ্র মাসের গরমে বাজারে প্রচুর পাকা তালের সমারোহ দেখতে পাওয়া যায়। তবে শ্রাবণের শেষ থেকেই দেশের গ্রামে গঞ্জের হাটে-বাজারে পাকা তাল উঠতে আরম্ভ করে।

    পাকা তালের মিষ্টি ঘ্রাণ ভাসে বাতাসে। তাল অত্যন্ত সুমিষ্ট এবং রসালো একটি ফল। তাল গাছ পাম গোত্রের একটি অন্যতম দীর্ঘ গাছ। এই গাছের পাতাগুলো পাখার মতো ছড়ানো থাকে।

    ফল হিসেবে তাল এবং এর পাতার বহুমুখী ব্যবহারের কারণে তালগাছ জনপ্রিয়। তাল গাছের পাতা থেকে তৈরি হয় গরমে আরামদায়ক পাখা। গরমে আরামদায়ক ফলে এই আধুনিক যুগেও তালের পাখার চাহিদা এখনও কমেনি। তালগাছের প্রায় প্রতিটি অংশই গুরুত্বপূর্ণ। পাখা তৈরি ছাড়াও তালপাতার চাঁটাই,ঘরের ছাউনি,মাদুর,খেলার পুতুল তৈরি করা হয়।

    একসময় তালপাতা লেখার কাজে বহুল ব্যবহৃত হতো। তালপাতায় লিখে তা সংরক্ষণ করা হতো। তালের কান্ড দিয়ে নৌকা তৈরি করতে দেখা যায়। এ ছাড়া বাড়িও তৈরি হয়।

    ফল এবং বীজ দুই-ই বাঙালির প্রিয় খাদ্য তালিকায়। যখন তাল ছোট থাকে তখন তালের মধ্যেকার নরম রসালো শ্বাসের চাহিদা থাকে ব্যাপক। আবার পাকা তালের চাহিদাও প্রচুর। মিষ্টি ঘন নির্যাস বের করা হয় তাল থেকে। বাজারে সচরাচর দুই ধরনের তাল দেখা যায়।

    একটি কালো এবং অন্যটি একটু লালচে বর্ণের। তালের নির্যাস থেকে নানা রকমের পিঠা তৈরি করা হয়। তালের রস আটার সাথে মিশিয়ে বিশেষভাবে তেলে ভাজা হয়। এর বাইরেও তালের ব্যবহার রয়েছে। রস দুধ এবং চিনি দিয়ে ঘন জ¦াল দিয়েও খাওয়া হয়। তালের রয়েছে প্রচুর পুষ্টিগুণ। তালে রয়েছে ভিটামিন এ,বি ও সি।

    এছাড়াও জিংক,পটাশিয়াম,আয়রন ও ক্যালসিয়াম ও বিভিন্ন খনিজ উপাদান বিদ্যমান রয়েছে। এর সাথে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও এ্যান্টি ইনফ্লামেটরি উপাদান। তাছাড়া তাল থেকে মিছরি তৈরি করা হয়।

    পাবনার বেড়া উপজেলার নাকালিয়া বাজারের একটি অংশ তাল বিক্রির জন্য লোক মুখে তালের হাট হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। সেখানে হাটবারে বিক্রি হচ্ছে প্রচুর তাল। বাজারে দুই ধরনের তাল রয়েছে। একটির রং কালো আর একটি গাঢ লালের মাঝে হালকা কালোর ছোপ। তবে কালো রঙের তালের চাহিদাই বেশী। কারণ এতে রস বেশী আর খেতেও মিষ্টি। ক্রেতাসমাগমও চোখে পরার মত।

    বাজারের একেবারে শেষ দিকে বসছে পাকা তাল বেচাকেনার হাট। একটু দূর থেকেই ভেসে আসে মিষ্টি ঘ্রাণ। ছোট বড় নানা সাইজের তাল পাওয়া যায় এখানে। একেকটি বড় তাল ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, ছোট ও মাঝারি আকারের তাল ২৫ থেকে ৩০ টাকা হিসেবে বিক্রি হচ্ছে। তাল কেনার সময় নাকের কাছে টেনে একবার হলেও ঘ্রাণ নিতে ভুল করেন না ক্রেতারা। এটাই মনে হয় এ সময়ের ফরমালিনমুক্ত ফল। স্থানীয় তাল ছাড়া বেশীরভাগ তাল আসছে সাঁথিয়া উপজেলার দুলাই থেকে। সেখানে প্রচুর তালের উৎপাদন হয়।

    এ বাজারে বিক্রি করতে আসা হালিম মিয়া জানান, প্রতি বছর এ সময়ে পাকা তালের চাহিদা থাকে বেশী। হাটবার গুলোতে ভালোই বিক্রি হচ্ছে। তাল কিনতে আসা এক ক্রেতা বলেন, বাজারে পাষ্ট্রচুর তাল রয়েছে কিন্তু দাম বেশী। এ সময় আরও একটু দাম কম হওয়ার কথা।


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর