সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
ঘোড়াঘাট প্রেসক্লাবের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত – গ্রামীন নিউজ২৪ বিয়ে খেতে এসে পদ্মায় নিখোঁজ, ২ শিশুর মরদেহ উদ্ধার – গ্রামীন নিউজ২৪ চট্টগ্রামে বস্তিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে – গ্রামীন নিউজ২৪ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আগুন সিলেটে বিদ্যুৎহীন ১৭ হাজার গ্রাহক – গ্রামীন নিউজ২৪ গোবিন্দগঞ্জ থেকে অটোচালকের মরদেহ উদ্ধার – গ্রামীন নিউজ২৪ এমভি আবদুল্লাহকে জি‌ম্মি করা ৮ সোমালিয়ান জলদস্যু গ্রেপ্তার – গ্রামীন নিউজ২৪ প্রধানমন্ত্রী সকল সংস্কৃতির সম্প্রদায়কে এক ছাতার নিচে ধরে রেখেছেন-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ রমনার বটমূলে চলছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান – গ্রামীন নিউজ২৪ আজ পহেলা বৈশাখ – গ্রামীন নিউজ২৪ ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি ২৩ নাবিক – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

পাবনার আটঘরিয়ায় ন্যায্য মুজুরি থেকে বঞ্চিত হচ্ছে আদিবাসী নারী শ্রমিকরা – গ্রামীন নিউজ২৪

ইব্রাহীম খলীল, পাবনা জেলা প্রতিনিধি: / ২০৮৮ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৭ আগস্ট, ২০২১, ২:৫৪ পূর্বাহ্ণ
  • Print
  • মানবেতর জীবনযাপন করছেন শ্রীকান্তপুর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী আদিবাসী (বুনো) সম্প্রদায়। স্বাধীনতার ৫০ বছর পার হলেও আজও আদিবাসী (বুনো) জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষা ব্যবস্থা, কর্মজীবন ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে লেশমাত্র পরিবর্তন হয়নি।

    আর এ সংকটময় জীবনযাপন যেন নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে পড়েছে আদিবাসী (বুনো) পল্লীর মানুষের। দেশের উন্নয়ন কল্পে নারীদের ভূমিকা দেখে যে কেউ এক বাক্যে বলতে বাধ্য, নারী শ্রমিক সমাজ উন্নয়ের হাতিয়ার। কেনোনা দেশে বা বিদেশে নারী শ্রমিকের সংখ্যা দিনে দিনে বেড়েই যাচ্ছে।

    বর্তমানে পাবনা জেলার আটঘরিয়া উপজেলার শ্রীকান্তপুর গ্রামের নারী শ্রমিকদের কদর বেড়েই চলছে। দারিদ্রতা, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধির কারণে সংসারের চাহিদা মেটাতে গিয়ে নারীরা বিভিন্ন েকাজে জড়িয়ে পড়ছে। নারী শ্রমিকদের কদর বেড়ে গেলেও ন্যায্য মুজুরী থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তারা।

    আদিবাসী নারী কৃষি শ্রমিকেরা বাবা-মায়ের ঘর ছেড়ে স্বামীর সংসারে আসার পর থেকেই মাঠে শ্রমিকের কাজ করেন। আদিবাসী মেয়েদের জীবনে কখনও সুখ আসেনি। যা খানিকটা ছিল তা বিয়ের আগে।

    ৩৫টি আদিবাসী পরিবার রয়েছে। এর মধ্যে ৩০টি পরিবারের নারীরাই অন্যের জমিতে মজুরের কাজ করেন। তবে নারীরা আশপাশের গ্রাম ছাড়া খুব বেশি দূরে মজুর খাটতে যান না। পুরুষরা পার্শ্ববর্তী জেলা সিরাজগঞ্জ, তারাশ,নাটোর, নওগাঁসহ উত্তরেও কাজ করতে যান। এক-দেড় মাস মজুর খেটে ফিরে আসে।

    আদিবাসী নারীরা প্রধানত ধানের চারা লাগানো, নিড়ানো, ধান কাটা, পেঁয়াজ-রসুন লাগানো, তোলা- এসব কাজ করেন। বিশেষ করে ধানের চারা রোপণে নারী শ্রমিকদের চাহিদা বেশি। তারা খুব যত্ন করে চমৎকার সারি সারি চারা বসান। বাজে কাজে সময়ও নষ্ট করেন না। কিন্তু এত সুন্দর যাদের কাজ, সময়ে যারা এত মিতব্যয়ী, তাদের পুরুষ শ্রমিকদের চেয়ে অনেক কম পারিশ্রমিক দেওয়া হয়- জানালেন, ফুলতুলি। তার গলায় ঝরল অভিমান- ‘আমাগের কাম ভালো নাগে, কিন্তুক ট্যাক্যা বেশি দিবি ন্যা।’

    ফুলতুলির মেয়ে সুলেখা জানালেন, বর্তমানে পুরুষ মজুররা দিনে পান কমপক্ষে ৫শ’ টাকা। আর তাদের দেওয়া হয় আড়াইশ’ থেকে ৩শ’ টাকা। দিনের আয় দিনেই খরচ হয়ে যায়।
    ‘অভাবের সোংসারের দিন এইভাবেই কাইট্যা যায়।’

    শ্রীকান্তপুর বেতেপাড়া মাঠে সরোজমিনে গিয়ে কিছু নারী শ্রমিকদের ধানের চারা লাগাতে দেখা যায়। এরা হলেন, সুলেখা,ফুলতুলি,নীলমণি, সীমা,নিস্তারাণী,শিশুরাণী,সারর্থী রাণী, আবেন রাণী,সাথী,ফণীতা,ফুলো মালা,দিপালী রাণী,শান্তি রাণী,মেনোকা বালা। আর এদের কাজ দেখভাল করছেন, শ্রী-দিলীপ সিং, শ্রী- সুখিল সিংসহ প্রমুখ।


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর