সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
সন্তানকে কোলে নিয়ে চলন্ত ট্রেনের নিচে এক মা – গ্রামীন নিউজ২৪ শবেবরাতে যেসব আমল করবেন – গ্রামীন নিউজ২৪ মানিকগঞ্জে ভুট্টাক্ষেতের আড়ালে আফিম চাষ আটক এক – গ্রামীন নিউজ২৪ মোটরসাইকেল চুরির মিথ্যা অপবাদে এক যুবকের আত্মহত্যা – গ্রামীন নিউজ২৪ গাইবান্ধায় পৃথক অভিযানে মাদকসহ আটক তিন – গ্রামীন নিউজ২৪ মিথ্যা তথ্যের খবর ঠেকাতে নতুন আইন আসছে: আইনমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ সম্পর্কের নতুন অধ্যায় শুরু করতে চায় যুক্তরাষ্ট্র: পররাষ্ট্রমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ গাইবান্ধা পাসপোর্ট অফিসে দুদকের অভিযান টাকাসহ আটক তিন দালাল – গ্রামীন নিউজ২৪ ২ সন্তানকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা – গ্রামীন নিউজ২৪ গর্ভের শিশুর লিঙ্গ পরিচয় প্রকাশ করা যাবে না: হাইকোর্ট – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

সরকারি ঘর দেওয়ার নামে মোরজিনার টাকা চেয়ারম্যান নাজিরের পকেটে – গ্রামীন নিউজ২৪

মোসলেম উদ্দিন, হিলি দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ / ১৪২১ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১:৪৫ অপরাহ্ণ
  • Print
  • সরকারি ঘর দেওয়ার নামে অসহায় হতদরিদ্র মোরজিনা বেগমের ৪০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলার ২ নং কাটলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজির হোসেন। এনজিও’র কিস্তি আর ধারদেনা করে এই টাকা জোগাড় করেন মোরজিনা বেগম। আজ পাওনা টাকা পরিশোধ করতে অনেক হিমশিম খাচ্ছেন তিনি।

    উপজেলার ২নং ইউনিয়নের উত্তর কাটলা গ্রামের আবু সাইদের অসহায় স্ত্রী মোরজিনা বেগম। ঘরে তার দুই মেয়ে আর এক ছেলে, স্বামী আবু সাইদ অনেক আগে তাকে ছেড়ে চলে গেছে। বহু কষ্টে ছেলে-মেয়েদের মানুষ করছেন তিনি। বড় মেয়ে বিয়ের উপযুক্ত হয়েছে, অর্থের অভাবে বিয়ে দিতে পারছেন না মেয়েকে।

    কয়েক শতক জায়গার উপর মোরজিনার একটি ছোট কুঁড়েঘর। স্বামী হারা সন্তানদের নিয়ে এই কুঁড়েঘরে তার কষ্টের বসবাস। অল্প একটু ঝড়-বৃষ্টি হলেই তার ঘর নড়বড় করে, প্রতিনিয়ত ছেলে-মেয়েদের নিয়ে তাকে আতঙ্কে থাকতে হয়।

    অনেক আশা সরকারের দেওয়া পাকা বাড়িতে ছেলে-মেয়েদের নিয়ে নিরাপদে বসবাস করবে মোরজিনা। তাই মানুষের কাছে ধারদেনা আর এনজিও’র নিকট কিস্তি নিয়ে ৪০ হাজার টাকা জোগাড় করে স্থানীয় চেয়ারম্যানের নিকট পাঠান। কিন্তু আশায় বাসা বাঁধলেও আজও তার আশা পুরন করেনি এই চেয়ারম্যান নাজির হোসেন।
    তবুও আশা আর স্বপ্ন দেখা ছাড়েননি এই অসহায় গরীব মোরজিনা বেগম। আজও তাকে দেখা যায় কাটলা ইউনিয়ন পরিষদে স্বপ্নে দেখা ঘরের খোঁজে।

    ২ নং কাটলা ইউনিয়ন পরিষদে দেখা হয় ভুক্তভোগী মোরজিনা বেগমকে। তিনি বলেন, হারা গরীব মানুষ, স্বামী নাই, অনেক কষ্ট করে ছোলপল মানুষ করুছু। ঘরদুয়ার নাই, চেয়ারম্যান মোক সরকারি ঘর করে দিবি। এই তঙ্কে চেয়ারম্যানের শালা শহিদুলের হাতে চায়েচিন্ত ৪০ হাজার টাকা চেয়ারম্যান নাজিরের কাছে দেউ। চেয়ারম্যান মোক কইছিলো তোমার কাগজপাতি সব হয়ে গেইছে, এক সপ্তাহের মধ্যে কাজ হবে। তিন বছর হলো, কিন্তু আজ পর্যন্ত চেয়ারম্যান মোর ঘরের ব্যবস্থা করে দিলি না। মোর মতো গরীব মানুষক, আর কত কষ্ট করবা নাগবে?

    টাকা নিয়ে মোরজিনাকে ঘর কেন দিচ্ছেন না, এমন প্রশ্ন করলে, বিরামপুর উপজেলার ২ নং কাটলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাজির হোসেন বলেন, আমি তার নিকট কোন টাকা নেইনি। এগুলো মিথ্যা এবং বানুয়াট।

    এবিষয়ে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার জানান, আমি এবিষয়ে অবগত নই এবং কেউ আমাকে অভিযোগ করেনি। তবে আমার নিকট অভিযোগ করলে আমি এবিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর