সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
ঘোড়াঘাট প্রেসক্লাবের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত – গ্রামীন নিউজ২৪ বিয়ে খেতে এসে পদ্মায় নিখোঁজ, ২ শিশুর মরদেহ উদ্ধার – গ্রামীন নিউজ২৪ চট্টগ্রামে বস্তিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে – গ্রামীন নিউজ২৪ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে আগুন সিলেটে বিদ্যুৎহীন ১৭ হাজার গ্রাহক – গ্রামীন নিউজ২৪ গোবিন্দগঞ্জ থেকে অটোচালকের মরদেহ উদ্ধার – গ্রামীন নিউজ২৪ এমভি আবদুল্লাহকে জি‌ম্মি করা ৮ সোমালিয়ান জলদস্যু গ্রেপ্তার – গ্রামীন নিউজ২৪ প্রধানমন্ত্রী সকল সংস্কৃতির সম্প্রদায়কে এক ছাতার নিচে ধরে রেখেছেন-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ রমনার বটমূলে চলছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান – গ্রামীন নিউজ২৪ আজ পহেলা বৈশাখ – গ্রামীন নিউজ২৪ ৩১ দিন পর অক্ষত অবস্থায় মুক্ত জাহাজসহ জিম্মি ২৩ নাবিক – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

ফিরে দেখা সুন্দরগঞ্জের শান্তিরামের মোস্তাফিজুর রহমানের রাজনৈতিক জীবন – গ্রামীন নিউজ২৪

মাইদুল ইসলাম স্টাফ রিপোর্টারঃ / ২০৫১ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২০ অক্টোবর, ২০২১, ৫:৪৪ অপরাহ্ণ
  • Print
  • গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শান্তিরাম ইউনিয়ন পরিষদ অন্যতম। এখানকার আওয়ামী লীগের নেতৃত্বের একমাত্র কর্ণধার মোস্তাফিজুর রহমান।জনমত নির্বিশেষে পর্যালোচনায় সকলের শীর্ষে মোস্তাফিজুর।

    তার রাজনৈতিক জীবন থেকে জানা যায়,১৯৮৭ সালে সুন্দরগঞ্জ ডি ডাব্লিউ ডিগ্রী কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় স্বৈরশাসক এরশাদ হটাও আন্দোলনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের একজন সক্রিয় খুদে কর্মী হিসেবে প্রয়াত জননেতা গোলাম মোস্তফা আহমেদ এমপির একান্ত স্নেহধন্য হয়ে রাজনীতিতে পথচলা শুরু করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

    তিনি আওয়ামী দুর্দিনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সুন্দরগঞ্জ ডি ডাব্লিউ ডিগ্রী কলেজ শাখার সক্রিয় সদস্য হিসেবে ১৯৮৯ হতে ১৯৯১ পর্যন্ত ও ১৯৯১ হতে ১৯৯৪ পর্যন্ত বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার সক্রিয় সদস্য হিসেবে সততা ও নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

    উল্লেখ তিনি আওয়ামী দুর্দিন ১৯৯১ হতে ৯৬ পর্যন্ত সুন্দরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সক্রিয় সদস্য এবং শান্তিরাম ইউনিয়ন যুবলীগের সদস্য হিসেবে ১৯৯৬ সালে ১৫ ফেব্রুয়ারী খালেদা জিয়ার একতরফা একদলীয় নির্বাচন প্রতিরোধ আন্দোলনে একজন মুজিব সৈনিক হিসেবে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেছেন।

    উল্লেখ যে জাতীয় সংসদ নির্বাচন একজন ছাত্র নেতা হিসেবে ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ তিনটি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন।

    পরবর্তীতে তিনি ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবক সুন্দরগঞ্জ উপজেলা শাখার আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য ও ২০০২ সালে শান্তিরাম ইউনিয়ন আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের সংগ্রামী সভাপতি হিসেবে হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করা অবস্থায় ২০০৩ সালে প্রথম বার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ শান্তিরাম ইউনিয়ন শাখার সম্মেলন ও কাউন্সিল অধিবেশনে সভাপতি পদে নির্বাচন করে পরাজিত হন তবুও তিনি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে আওয়ামী দুর্দিনে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ ঘোষিত সকল কর্মসূচীতে শান্তিরাম, বেলকা তথা সুন্দরগঞ্জে উপস্থিত থেকে আন্দোলন সংগ্রাম সফল করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতেন মোস্তাফিজুর রহমান।

    ফখরুদ্দীন সরকার পরবর্তী ২০০৮, ২০১৪, ( ২০১৭ও ২০১৮ জাতীয় সংসদ উপ নির্বাচন) সহ সর্বশেষ ২০১৮ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী সহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত মহাজোটের প্রার্থীর পক্ষে প্রত্যেকটি নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা ও একজন দহ্ম সংগঠক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতেন।
    গত ২০১৬ সালের ৩১ মার্চ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী হিসেবে শান্তিরাম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে ত্রি মুখী লড়াইয়ে তিনি অল্প ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হলেও তিনি কখনো আওয়ামী রাজনীতি ও জাতির পিতার আদর্শ হতে নিজেকে গুটিয়ে নেননি মোস্তাফিজুর রহমান।

    মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে শান্তিরাম ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও আওয়ামীলীগ নেতা জনাব পচা মামুদ ব্যপারী সহ ১৪ জন কে পাকবাহিনী ও রাজাকাররা সুন্দরগঞ্জ রাজাকার ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে খুন করে লাশ গুম করেন। শহীদ পচা মামুদ ব্যপারী মোস্তাফিজুর রহমানের আপন বড় জেঠা ছিলেন।

    সবমিলিয়ে শান্তিরাম ইউনিয়নে মোস্তাফিজুর রহমানের নৌকার মাঝি হিসেবে তার বিকল্প নেই। জনগণের আস্থার প্রতীক হিসেবে এলাকার সর্বোচ্চ উন্নয়ন সাধনে তাকে মনোনয়ন দেয়া হোক দাবি স্থানীয় ব্যক্তিবর্গের। এক বিশেষ বিবৃতিতে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি সবসময় জনগণের কল্যানে কাজ করেছি,জনগনকে নিয়েই আমার স্বপ্ন, তারাই আমার প্রেরণা। বাকীটা জীবন আমি তাদের কল্যানেই কাজ করবো ইনশাআল্লাহ।


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর