সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
তুরস্ক-সিরিয়ায় ভূমিকম্পে নিহতের ঘটনায় বাংলাদেশে রাষ্ট্রীয় শোক আজ – গ্রামীন নিউজ২৪ রাশিয়ার সেনাবাহিনীর সাবেক ক্যাপ্টেন কুখ্যাত’ সেনা কমান্ডার নিহত – গ্রামীন নিউজ২৪ তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভুমিকম্পে নিহতের সংখ্যা প্রায় ১৬ হাজারে পৌঁছেছে – গ্রামীন নিউজ২৪ গাইবান্ধায় নাগরিক উন্নয়ন সংস্থার শীতবস্ত্র বিতরণ – গ্রামীন নিউজ২৪ মোংলা বন্দরে এসেছে কয়লার জাহাজ – গ্রামীন নিউজ২৪ সংসদে বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বাড়ার কারন জানালেন প্রধানমন্ত্রী – গ্রামীন নিউজ২৪ ডুমুরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক জাহাঙ্গীরের বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার- গ্রামীন নিউজ২৪ বালিয়াডাঙ্গীতে প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা স্থান থেকে ফিরে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন – গ্রামীন নিউজ২৪ আটঘরিয়ায় নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে জনসচেতনতা মূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত – গ্রামীন নিউজ২৪ ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুদের মাঝে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য উপকরণ বিতরণ – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com

মধুখালীতে মিষ্টি কুমড়ার বাম্পার ফলন – গ্রামীন নিউজ২৪

মধুখালী (ফরিদপুর) প্রতিনিধি / ১২৩৯ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২১, ১:১৮ অপরাহ্ণ
  • Print
  • ফরিদপুরের মধুখালী উপজলায় মরিচের ক্ষতি সাথী ফসল হিসব মিষ্টি কুমড়া আবাদ করে সফলতা পেয়েছেন চাষিরা। বাড়তি সার ও কিটনাশক ছাড়াই স্বল্প খরচে বিষমুক্ত সবজি মিষ্টি কুমড়া উৎপাদন করে ভাল দাম পাওয়ায় কৃষকের মুখ হাসি।

    উপজলার বিভিন্ন এলাকায় আগস্ট মাসের মাঝামাঝি সময় চাষিরা মরিচের ক্ষতির মধ্যেই সাথী ফসল হিসাবে মিষ্টি কুমড়ার বীজ বপণ করেন। কুমড়ার বীজ লাগাতে কোন প্রকার চাষাবাদ করতে হয় না। বাড়তি সার ও কিটনাশক ছাড়াই বেড়ে উঠে মিষ্টি কুমড়া। ৬০ থেক ৬৫ দিনের মাথায় চাষিরা মিষ্টি কুমড়া বাজারজাত করতে পারেন। জমিতে কুমড়ার মাচা হিসাবে ব্যবহার হয় মরিচ গাছ। এতে চাষিদের বাড়তি খরচ করে মাচা দেওয়ার প্রয়াজন হয় না। মরিচ গাছের মাচার নিচে ঝুলে থাকে মিষ্টি কুমড়া। উৎপাদিত কুমড়া স্থানীয় চাহিদা পূরণ করে বিভিন্ন জেলাতেও পাঠানো হচ্ছে।

    প্রতি হেক্টর জমিতে সবমিলিয় খরচ হয় প্রায় ৪০ হাজার টাকা, আর কুমড়া বিক্রয় হয় দুই থেক আড়াই লাখ টাকা। চাষিরা এখন কুমড়া বাজারজাতকরণে ব্যস্ত। ভাল দাম পাওয়ায় তাদের মুখেও হাসি। উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের এক
    চাষী মোঃ আলীমউদ্দিন শেখ জানান ৩৫ শতাংশ জমিতে  মরিচের ক্ষতি সাথী ফসল হিসাবে কুমড়ার চাষ করা হয়েছে। ফলন ভাল হয়েছে। প্রায় ৪শতাধিক কুমড়া ধরেছে। প্রতিপিস কুমড়া ৭০/৮০ টাকায় বিক্রয় হবে। সেই হিসাব মতে প্রায় ৩০ হাজার টাকা বিক্রয় হবে।

    উপজলা কষি কর্মকর্তা মোঃ আলভী রহমান বলেন উপজলায় এ বছর ২ হাজার ৪শত ৩০ হেক্টর জমিতে কুমড়ার চাষ করা  হয়েছে। যা গতবারের তুলনায় ৩০ হক্টর জমি বেশি। এ অঞ্চললের মাটি মিষ্টি কুমড়া চাষের উপযোগী হওয়ায় নিরাপদ প্রকল্পের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে কুমড়া চাষে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়ে থাকে।

    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv

    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর