সংবাদ শিরোনাম :
সংবাদ শিরোনাম :
মামুনুল হক ডিবি কার্যালয়ে গিয়েছিলেন জব্দ করা মোবাইল আনতে – গ্রামীন নিউজ২৪ সাঘাটায় অবৈধ ইটভাটা বন্ধে অভিযান: ৩ ইটভাটায় জরিমানা – গ্রামীন নিউজ২৪ আবারও বেড়েছে সোনার দাম – গ্রামীন নিউজ২৪ পুকুর থেকে প্রকৌশলীর লাশ উদ্ধার – গ্রামীন নিউজ২৪ রাহুল বিয়ে করুক, সুখী হোক: প্রিয়াঙ্কা গান্ধী – গ্রামীন নিউজ২৪ নাগরিকদের প্রতি যে কোনো বৈষম্য আইনের শাসনের পরিপন্থী: রাষ্ট্রপতি – গ্রামীন নিউজ২৪ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে ছুরিকাঘাতে নিহত ১ – গ্রামীন নিউজ২৪ ১ ঘন্টার চেষ্টায় কাওরানবাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে – গ্রামীন নিউজ২৪ সাতক্ষীরার তালায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ – গ্রামীন নিউজ২৪ শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা, চাচিসহ গ্রেপ্তার ৩ – গ্রামীন নিউজ২৪
বিজ্ঞপ্তি :
গ্রামীন নিউজ২৪টিভি পরিবারের জন্য দেশব্যাপী প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। যোগ্যতা এইচ এসসি পাশ, অভিজ্ঞতাঃ ১ বৎসর, আগ্রহীরা যোগাযোগ করুন 01729188818, সিভি ইমেইল করুনঃ grameennews24tv@gmail.com। স্বল্প খরচে সাপ্তাহিক, মাসিক, বাৎসরিক চুক্তিতে আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুন ০১৭২৯১৮৮৮১৮

স্বাস্থের চতুর্থ শ্রেণির ছয় কর্মচারীকে নিয়ে গেছে সিআইডি – গ্রামীন নিউজ২৪

গ্রামীন নিউজ ডেস্কঃ / ১৩০৯ বার পঠিত
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২১, ২:৩০ অপরাহ্ণ
  • Print
  • স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্যশিক্ষা বিভাগের ১৭টি নথি খোয়া যাওয়ার ঘটনায় বিভাগটির তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির ছয় কর্মচারীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে গেছে সিআইডি। 

    আজ রোববার (৩১ অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে সচিবালয় থেকে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়।

    সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজাদ রহমান গনমাধ্যমকে জানান, কাউকে আটক করা হয়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ জনকে আনা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

    এর আগে গত বৃহস্পতিবার নথি গায়েবের ঘটনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপসচিব নাদিরা হায়দার বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন।

    কিন্তু শুক্র ও শনিবার সরকারি ছুটি থাকায় তদন্ত করা সম্ভব হয়নি। তাই আজ রোববার নথি গায়েবের ঘটনায় সচিবালয়ে তদন্ত শুরু করে সিআইডির ক্রাইম সিনের সদস্যরা।

    তারা সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের নিচতলায় (২৯ নম্বর কক্ষ) অতিরিক্ত সচিব মো. শাহাদাৎ হোসাইন ও যুগ্ম সচিব কাজী আনোয়ার হোসেনের কক্ষে তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করেন। এ সময় সবার আঙ্গুলের ছাপ ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চেক করা হয়। অন্তত ১৩ জনের আঙ্গুলের ছাপ নেয় সিআইডির ক্রাইম সিন।

    তদন্তের জন্য এদিন সচিবালয়ে এসেছিলেন সিআইডির বিশেষ সুপার মো. কামরুজ্জামান।

    শাহবাগ থানায় করা জিডিতে বলা হয়েছে, গত ২৭ অক্টোবর বুধবার অফিস করে নথিগুলো ফাইল কেবিনেটে রাখা হয়। পরদিন দুপুর ১২টায় কাজ করতে গিয়ে দেখা যায় ফাইলগুলো কেবিনেটের মধ্যে নেই।

    যে নথিগুলো খোয়া গেছে সেগুলোর সিংহভাগই স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের অধীন বিভিন্ন মেডিকেল কলেজ ও বিভাগের কেনাকাটা সম্পর্কিত।

    এ ঘটনায় তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
    সাহিম/বা.বি


    এ জাতীয় আরো সংবাদ
    • আমাদের ইউটিউব পেজ ভিজিট করতে লগইন করুনঃ Grameen news24 Tv
    এক ক্লিকে বিভাগের খবর